লেভানদোভস্কিকে নিয়ে সতর্ক বায়ার্ন

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের ড্রয়ের পর থেকেই বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখের লড়াই নিয়ে আলোচনা সর্বমহলে। সেটা শুধু দল দুটির সাম্প্রতিক মুখোমুখি ম্যাচগুলোর জন্যই নয়, সেখানে বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে রবার্ট লেভানদোভস্কির নতুন ক্লাবের হয়ে পুরনো ঠিকানায় ফেরার উপলক্ষও।

মুখোমুখি হওয়ার আগে বায়ার্ন কোচ জুলিয়ান নাগেলসম্যান বলেছেন, আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় পোলিশ তারকাকে স্বাগত জানাতে উন্মুখ হয়ে আছেন তিনি।

 

গত গ্রীষ্মের দলবদলে সবচেয়ে আলোচিত ঘটনাগুলির একটি ছিল লেভানদোভস্কির বায়ার্ন ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দেওয়া। চুক্তি শেষের আগে কোনোভাবেই এই স্ট্রাইকারকে ছাড়তে রাজি ছিল না জার্মান চ্যাম্পিয়নরা। ক্লাব ও সমর্থকদের চাওয়া ছিল যেকোনো মূল্যে তাকে ধরা রাখার।

তবে নতুন চ্যালেঞ্জের খোঁজে ক্লাব ছাড়তে মরিয়া ছিলেন লেভানদোভস্কি। নানা নাটকীয়তার পর গত জুলাইয়ে চার বছরের চুক্তিতে বার্সেলোনায় যোগ দেন তিনি।

ন্যু ক্যাম্পে তার নতুন ক্যারিয়ারের শুরুটা হয়েছে দুর্দান্ত। প্রথম পাঁচ ম্যাচে গোল করেছেন ৮টি। সবশেষ গত বুধবার কাতালান দলটির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথম ম্যাচে তিনি উপহার দেন দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক। ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে চেক রিপাবলিকের দল ভিক্টোরিয়া প্লাজেনকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে শুভ সূচনা করে জাভি হার্নান্দেজের দল।

‘মৃত্যুকূপ’ তকমা পাওয়া এই গ্রুপে নিজেদের পরের ম্যাচে আগামী মঙ্গলবার বায়ার্নের মাঠে খেলবে বার্সেলোনা। জার্মান দলটির বিপক্ষে স্প্যানিশ দলটির সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স মোটেও সুখকর নয়।

২০১৯-২০ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এক লেগের কোয়ার্টার-ফাইনালে বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলে গুঁড়িয়ে দেওয়া বায়ার্ন শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এর এক মৌসুম পর গত আসরে গ্রুপ পর্বেই দেখা হয়ে যায় তাদের। শক্তি হারানো বার্সেলোনা কোনো প্রতিরোধই গড়তে পারেনি সেবার। দুই লেগেই তাদের ৩-০ গোলে হারায় জার্মানির সফলতম দলটি।

সেসব তিক্ততা সঙ্গী করেই আগামী সপ্তাহে মিউনিখে খেলতে যাবে বার্সেলোনা। সেখানে বেশিরভাগের নজর থাকবে লেভানদোভস্কির ওপর। বায়ার্নে আট মৌসুমের সাফল্যমণ্ডিত অধ্যায়ে ৩৭৫ ম্যাচে তিনি গোল করেন ৩৪৪টি। কিন্তু ক্লাব ছাড়ায় তার ওপর ক্ষুব্ধ ছিল জার্মান দলটির কিছু সমর্থক।

আসন্ন এই ম্যাচ নিয়ে নাগেলসম্যান জানান, আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় লেভানদোভস্কিকে দেখার অপেক্ষায় আছেন তিনি। সমর্থকরা ৩৪ বছর বয়সী তারকার প্রতি সম্মান দেখাবে বলেই আশা বায়ার্ন কোচের।

নাগেলসম্যান বলেন, ‘হ্যাঁ, এখানে আবার তাকে দেখার অপেক্ষায় আছি। তবে তার মুখোমুখি হওয়ার জন্য এত বেশি উন্মুখ নই। কারণ গোলের সামনে সে খুব বিপজ্জনক। তবে একজন ব্যক্তি হিসেবে তার সঙ্গে দেখা হওয়ায় আমি খুশিই হব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *